বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ৩০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
রাজন ভট্টাচার্য
প্রকাশ : ১৪ মার্চ ২০২৩, ১০:৪৪ এএম
প্রিন্ট সংস্করণ

আওয়ামী লীগের কাছে ৭০ আসন চায় জাপা

আওয়ামী লীগের কাছে ৭০ আসন চায় জাপা

ধারাবাহিক গত তিনটি জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগের সঙ্গে জাতীয় পার্টি (জাপা) থাকলেও আসন্ন দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে প্রকাশ্য হিসাব কিছুটা ভিন্ন। যোগ্য প্রার্থী সংকটের মধ্যেও সারা দেশে ৩০০ আসনে একক নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে দলটি। পাশাপাশি সরকারি দলের সঙ্গে জোট বেঁধে নির্বাচনের পথও খোলা রাখছে জাপা। এজন্য অনানুষ্ঠানিকভাবে আওয়ামী লীগের কাছে ৭০টি আসন চেয়েছে জাপা। অন্যদিকে বিএনপির সঙ্গেও যোগাযোগ রাখা হচ্ছে বলে জানা গেছে।

জাপার একাধিক সূত্রে জানা গেছে, অনানুষ্ঠানিকভাবে আওয়ামী লীগের কাছে ৭০টি আসন চেয়েছে জাপা। এ ব্যাপারে ক্ষমতাসীন দলের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত বিরোধী দলকে আনুষ্ঠানিক কিছু জানানো হয়নি। বিএনপি যদি নির্বাচনে আসে সেক্ষেত্রে আসন বণ্টন নিয়ে দলটির সঙ্গে আলোচনা করবে জাপার হাইকমান্ড।

জাপা সূত্র বলছে, দলটির প্রধান পৃষ্ঠপোষক রওশন এরশাদ চান আওয়ামী লীগের সঙ্গে থেকেই আসন্ন নির্বাচনে অংশ নিতে। দলের চেয়ারম্যান জি এম কাদেরের ইচ্ছা বিএনপির সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধে নির্বাচন করার। জাপার অনেক নেতাই মনে করেন, সরকারের সঙ্গে সমঝোতার পরই আইনি ধকল কাটিয়ে মুক্ত রাজনীতিতে সক্রিয় হতে পেরেছেন জি এম কাদের। তাই রাজনৈতিক কারণে যত কথাই বলুক না কেন, শেষ পর্যন্ত আওয়ামী লীগের সঙ্গে থাকবে এরশাদের হাতে গড়া দলটি।

এ প্রসঙ্গে জি এম কাদের বলেন, এ মুহূর্তে এককভাবেই নির্বাচনে অংশগ্রহণের প্রস্তুতি নিচ্ছি। এজন্য ৩০০ আসনে প্রার্থী ঠিক করতে কাজ শুরু করেছি। এরই মধ্যে বেশকিছু আসনে সম্ভাব্য প্রার্থী চূড়ান্ত করে তাদের নির্বাচনী প্রস্তুতি নিতে বলা হয়েছে।

সম্প্রতি বনানীতে পার্টির চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে পার্টির কো-চেয়ারম্যান, প্রেসিডিয়াম সদস্য এবং সংসদ সদস্যদের যৌথ সভায় একক নির্বাচনের বিষয়টি স্পষ্ট করেছেন জি এম কাদের। বৈঠকে অংশ নেওয়া দলের একাধিক নেতা জানান, পার্টিপ্রধান একক নির্বাচনে অংশ নেওয়ার কথা বললেও শেষ পর্যন্ত রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট বিবেচনা করে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা জানিয়েছেন।

নির্বাচনের আগে বড় কোনো রাজনৈতিক দলের সঙ্গে জোটে যাওয়া সম্পর্কে কাদের বলেন, এটি সময় ও পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করছে। তখন দলীয় ফোরামে আলাপ-আলোচনা করেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

বর্তমান সংসদ সদস্য এবং আগামী দিনে যারা দলের মনোনয়নে নির্বাচন করবেন, তাদের এলাকামুখী হতেও নির্দেশ দেন। রোজা ও ঈদের সময় সাধারণ মানুষের পাশে থাকার জন্য পরামর্শ দেন জি এম কাদের।

জাপা একাধিক সূত্র জানিয়েছে, রওশনের সঙ্গে জি এম কাদেরের রাজনৈতিক সমঝোতা শেষে দলের অভ্যন্তরীণ সংকট কমেছে। বর্তমানে জাপার সংসদ সদস্য ২৬ জন। এই বিবেচনায় আসন বাড়াতে সরকারের সঙ্গে দূতিয়ালি করার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে রওশনকে। এ ক্ষেত্রে জাপার দাবি কমপক্ষে ৭০ আসন।

সম্প্রতি জাপার অভ্যন্তরীণ কোন্দলের মধ্যে রওশন ও জি এম কাদের একসঙ্গে গিয়ে সাক্ষাৎ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে। এই বৈঠকে বিএনপির ছেড়ে দেওয়া ৭টি আসনের উপনির্বাচনে ৪টি আসন দাবি করা হয় জাপার পক্ষ থেকে। তেমনি আসন্ন নির্বাচনে জাপাকে কত আসনে ছাড় দেওয়া হবে—এমন আলোচনা হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো দাবি করেছে।

এর বাইরেও আওয়ামী লীগের সঙ্গে অনানুষ্ঠানিক আলোচনা চলছে জাপার একাধিক নেতার। জাতীয় পার্টিতে দেবর-ভাবি দ্বন্দ্ব মেটানোর মূল কারিগর হিসেবে কাজ করেছেন সরকারি দলের নেতারা। তবে আসন্ন সংসদ নির্বাচনে বিএনপির অংশগ্রহণ করা না করার ওপর জাপাকে আসন ছাড় দেওয়ার বিষয়টি নির্ভর করছে। শেষ পর্যন্ত বিএনপি নির্বাচনে না এলে জাপাকে সর্বোচ্চ ৩০টি আসনে ছাড় দিতে পারে আওয়ামী লীগ।

২০১৮ সালের নির্বাচনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ তার মহাজোট শরিক দলগুলোকে ৪৫টি আসন দেয়। এর মধ্যে জাতীয় পার্টিকে দেওয়া হয় ২৯টি আসন। ২২ জন নির্বাচিত হন। বাকি চারজন সংরক্ষিত নারী সদস্য।

এদিকে জাপার একটি সূত্র জানিয়েছে, গত পাঁচ বছরে পার্টির সাংগঠনিক দুর্বলতা আরও বেড়েছে। এ বিবেচনায় ৩০০ আসনের মধ্যে ৫০ জন যোগ্যপ্রার্থী বাছাই করা কষ্টসাধ্য। ৫০ জন একক নির্বাচনে অংশ নিলে আসন একটিও না আসার ঝুঁকি রয়েছে। তাই পার্টির একটি বড় অংশ চায় আওয়ামী লীগের সঙ্গে দেনদরবার করে যত আসন নেওয়া যায়, ততই নিরাপদ।

জানতে চাইলে জাতীয় পার্টির মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু এমপি বলেন, জাপা নির্বাচনমুখী দল। আমরা ৩০০ আসনেই নির্বাচন করতে প্রস্তুতি নিচ্ছি। তবে সিদ্ধান্ত পরিবর্তনের প্রয়োজন হলে নির্বাচনের আগে পরিবেশ-পরিস্থিতি দেখে তখন আমরা কী করব, তা সবাই বসে ঠিক করব।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

নতুন ভিডিওতে শাকিব, হলিউড সিনেমার দৃশ্য নাকি অন্যকিছু

বিধবাকে মৃত দেখিয়ে শাশুড়িকে ভাতার কার্ড করে দিলেন ইউপি সদস্য

স্বাগতিকদের হারিয়ে সুপার এইটে ভারত

মাসুমা খান মজলিশ মারা গেছেন

হরিজন কলোনিতে উচ্ছেদ বন্ধের আহ্বান বাম জোটের 

প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর অধিকার রক্ষায় আইন সংশোধন প্রয়োজন : ব্লাস্ট

উপজেলা প্রশাসনের গাফিলতিতে ফসলি জমি হচ্ছে পুকুর

গবেষণা / ফুটপাতের যে ৬ খাবারে উচ্চমাত্রার ডায়রিয়ার জীবাণু

কোরবানি ঈদকে সামনে রেখে বাজারে বেড়েছে মসলার দাম

সারাবিশ্বে জাল পাতছেন এরদোয়ান

১০

‘ড্যানিস নিট ওয়্যারে শ্রমিকদের বকেয়া পাওনা পরিশোধ করুন’

১১

দেশে যৌন নিপীড়নের শিকার ২৫ লাখ শিশুর রিপোর্ট যুক্তরাষ্ট্রের হাতে

১২

ইউক্রেনে যুদ্ধের ময়দান থেকে পালাল যুক্তরাষ্ট্রের আব্রামস ট্যাংক

১৩

সড়ক দুর্ঘটনায় সৌদি আরবে প্রাণ গেল যুবকের

১৪

ভারত পৃথিবীর সবচেয়ে বড় গণতান্ত্রিক দেশ : মুক্তিযুদ্ধবিষয়কমন্ত্রী 

১৫

মজুরি বৃদ্ধির দাবিতে দর্জি শ্রমিকদের ধর্মঘট

১৬

ভাইস প্রেসিডেন্টের বিমান বিধ্বস্ত হয়ে সবাই নিহত

১৭

নারায়ণগঞ্জে নদী থেকে ইট বাঁধা অজ্ঞাত মরদেহ উদ্ধার

১৮

ফরিদপুরে সাপের কামড়ে কৃষকের মৃত্যু 

১৯

বালিশচাপায় হত্যা, মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার

২০
X