কালবেলা প্রতিবেদক, গাজীপুর
প্রকাশ : ২৪ মে ২০২৩, ০৮:২৬ এএম
প্রিন্ট সংস্করণ

পাঁচ বছরের হোল্ডিং ট্যাক্স মওকুফের প্রতিশ্রুতি জায়েদার

পাঁচ বছরের হোল্ডিং ট্যাক্স মওকুফের প্রতিশ্রুতি জায়েদার

গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ইশতেহার ঘোষণা করেছেন স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী জায়েদা খাতুন। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে ছয়দানা এলাকায় নিজ বাড়িতে সংবাদ সম্মেলনে ইশতেহার ঘোষণা করেন জায়েদা খাতুন। অন্যদিকে টঙ্গীর নিজ বাড়িতে সংবাদ সম্মেলনে নগর উন্নয়নে ১৯ দফা ইশতেহার ঘোষণা করেন রনি। জায়েদার ইশতেহারে ছেলে জাহাঙ্গীরের অসমাপ্ত কাজ সম্পন্ন করার অঙ্গীকার ও সাধারণ মানুষের আগামী ৫ বছরের হোল্ডিং ট্যাক্স মওকুফ করার প্রতিশ্রুতি দেন।

জায়েদা খাতুন তার ইশতেহারে বলেন, আমি নির্বাচিত হলে আমার ছেলে সাবেক মেয়র মো. জাহাঙ্গীর আলমের সব পরিকল্পনা ও তার প্রণীত মাস্টারপ্ল্যান অনুযায়ী অসমাপ্ত কাজ সম্পন্ন করব।

সংবাদ সম্মেলনে ৯ দফার ইশতেহারে ৬০টি উপদফায় বিভিন্ন প্রতিশ্রুতি তুলে ধরেন জায়েদা খাতুন। তিনি নারী উদ্যোক্তাদের বিনা সুদে ঋণ, আউটার রিং রোড নির্মাণ, পর্যাপ্ত সংযোগ ব্রিজ নির্মাণ, যাতায়াতের একাধিক বিকল্প রাস্তা তৈরি, গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলোতে ফ্লাইওভার, ইউপাশ, ইউলুপ নির্মাণ, নিরাপদ সড়ক ও নিরাপদ যাতায়াতের জন্য ফুট ওভারব্রিজ, জেব্রা ক্রসিং নির্মাণ, বর্জ্য ব্যবস্থাপনার স্থায়ী সমাধানের প্রতিশ্রুতি দেন। ইশতেহার ঘোষণাকালে তার ছেলে আওয়ামী লীগের বহিষ্কৃত নেতা ও সাবেক মেয়র মো. জাহাঙ্গীর আলম উপস্থিত ছিলেন।

তিনি ইশতেহারে উল্লেখ করেন, হোল্ডিং অনুযায়ী বিভিন্ন সেবা ডিজিটালাইজড করার লক্ষ্যে ডিজিটাল হোল্ডিং ম্যানেজমেন্ট সিস্টেম বাস্তবায়ন করা হবে এবং স্মার্ট হোল্ডিং কার্ড প্রদান করা হবে। এতে করে নাগরিকরা অনলাইনের মাধ্যমে ঘরে বসে হোল্ডিং ট্যাক্স প্রদান করতে পারবেন। যেই দিন আবেদন করা হবে সেই দিনই ট্রেড লাইসেন্স ইস্যু ও নবায়নের জন্য ই-ট্রেড লাইসেন্স চালু করা হবে। এতে করে নাগরিকগণ অনলাইনে লাইসেন্সের আবেদন এবং নবায়ন করতে পারবেন।

সিটির বিভিন্ন উন্নয়ন নিয়ে ইশতেহারে উল্লেখ করেন, আমার ছেলে জাহাঙ্গীর আলমের পরিকল্পনা ও তার প্রণীত মাস্টার প্ল্যান অনুযায়ী রাস্তাঘাট, ড্রেনেজ ও যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন করা হবে। সিটি করপোরেশনের ৫৭টি ওয়ার্ডে রাস্তা ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার ব্যাপক উন্নয়ন করা হবে। প্রতিটি ওয়ার্ডে প্রয়োজন অনুযায়ী এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দিক-নির্দেশনা অনুযায়ী দীর্ঘমেয়াদি চলাচল উপযোগী রাস্তা নির্মাণ করব। সিটি করপোরেশন এলাকা রাজেন্দ্রপুর থেকে শুরু করে টঙ্গী হয়ে আশুলিয়া, কোনাবাড়ি, কাশিমপুর কাউলতিয়াকে সংযুক্ত করে আউটার রিং রোড নির্মাণ ও দ্রুত সময়ের মধ্যে পর্যাপ্ত সংযোগ ব্রিজ নির্মাণ করে যাতায়াতের একাধিক বিকল্প রাস্তা তৈরি, গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলোতে পর্যাপ্ত ফ্লাইওভার, ইউপাশ, ইউলুপ নির্মাণ, নিরাপদ সড়ক ও নিরাপদ যাতায়াতের জন্য ফুট ওভারব্রিজ, জেব্রা ক্রসিং নির্মাণ ও সরকারের অন্যান্য দপ্তরের সঙ্গে সমন্বয় করে যানজট সমস্যার স্থায়ী সমাধান করা হবে। এ ছাড়া অত্যাধুনিক যাত্রী ছাউনি নির্মাণ, বিশুদ্ধ খাবার পানির ব্যবস্থার পাশাপাশি নগরীতে চলাচলের জন্য অত্যাধুনিক চক্রাকার এসি বাস সার্ভিস চালু করা হবে যাতে নগরবাসী সহজে ও নিরাপদে চলাচল করতে পারে। সিটি করপোরেশন এলাকার বিভিন্ন সড়কের নাম বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের নামে নামকরণ করা হবে।

অন্যদিকে সরকার শাহানূর ইসলাম রনির ঘোষিত নির্বাচনী ইশতেহারে গাজীপুরকে পরিকল্পিত পরিচ্ছন্ন নগরী গড়ার ওপর জোর দেওয়া হয়। এ ছাড়া শিল্পবান্ধব পরিবেশ তৈরি, রাস্তা ঘাট ও যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন, জয়দেবপুর লেভেল ক্রসিংয়ে ফ্লাইওভার নির্মাণ, বিনোদন ও খেলার মাঠ নির্মাণ, সহনীয় কর নির্ধারণ, জলাবদ্ধতা নিরসন ও মাদকমুক্ত সিটি করপোরেশনের ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়। এ ছাড়া ইশতেহারে দূষণমুক্ত নগরী গড়তে একশ বছরের মাস্টার প্ল্যানের কথা উল্লেখ করেন তিনি।

গতকাল সকালে টঙ্গী স্টেশন রোডের বাসভবনে আনুষ্ঠানিকভাবে তিনি এ ইশতেহার ঘোষণা করেন। এ সময় রনি সরকার সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে আশঙ্কা ব্যক্ত করে বলেন, গাজীপুরে নির্বাচন নয়, চর দখলের মতো মেয়রের চেয়ার দখলের নানা আয়োজন চলছে। গাসিকের প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই মেয়রের চেয়ার নিয়ে টানাটানি চলছে মন্তব্য করে রনি বলেন, এই সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয় বলে বিএনপি বা বিরোধী দলগুলো যে অভিযোগ করে আসছিল আমি এখন এর বাস্তব প্রমাণ পাচ্ছি। নির্বাচন কমিশন শুধুই কথার ফুলঝুরি দিয়ে মানুষকে বিভ্রান্ত করছে, এটিও সরকারের আজ্ঞাবহ একটি নির্বাচন কমিশন।’

রনি সরকার বলেন, ‘গাজীপুর সিটির প্রথম নির্বাচনে সাবেক মন্ত্রী অধ্যাপক এম এ মান্নানকে বিপুল ভোটে মেয়র নির্বাচিত করেছিলেন নগরবাসী। কিন্তু জনরায়কে অসম্মান করে ষড়যন্ত্রমূলক সাজানো মিথ্যা মামলায় তাকে দীর্ঘদিন কারান্তরালে রেখে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দেওয়া হয়। ফলে উন্নয়ন বঞ্চিত হন গাজীপুরবাসী।’ তিনি বলেন, ‘একইভাবে সরকারি দলের স্থানীয় নেতাদের ক্ষমতা ও স্বার্থের দ্বন্দ্বে দ্বিতীয় পরিষদের মেয়রও তার দায়িত্বকাল অতিবাহিত করতে পারেননি। তদুপরি গত ৫ বছর সিটি করপোরেশনে কী পরিমাণ দুর্নীতি হয়েছে, তা এখন তাদের (আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ) মুখ থেকেই উচ্চারিত হচ্ছে।

রনি অভিযোগ করে বলেন, ‘শত শত কোটি টাকার এই দুর্নীতির ভাগীদার ছিলেন তারা সবাই। তাদের মধ্যে ক্ষমতার দ্বন্দ্ব শুরু না হলে হয়তো আমরা কেউ আজ এ দুর্নীতির চিত্র জানতেই পারতাম না এবং থলের বিড়ালও বেরিয়ে আসত না।’

রনি সরকার দুর্নীতি ও হিংসা-বিদ্বেষমুক্ত একটি সুন্দর ভবিষ্যৎ প্রজন্ম উপহার দেওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করে বলেন, আমি নির্বাচিত হলে গাজীপুর সিটি করপোরেশনের সব নাগরিকের নাগরিকসেবা সহজ ও জনবান্ধব করব, শিল্পবান্ধব পরিবেশ গড়ে তুলব, বিকল্প রাস্তা সম্প্রসারণ ও উন্নয়ন ঘটিয়ে ঢাকা-গাজীপুর যানজটমুক্ত যাতায়াতের নতুন দিগন্ত উন্মোচন করব, নগরীর পূর্ব-পশ্চিমমুখী দুটি রাস্তা নির্মাণ করা হবে, রেলক্রসিংগুলোতে ওভারপাস নির্মাণ করা হবে, আধুনিক সুযোগ সুবিধা সংবলিত স্কুল-কলেজ গড়ে তোলা হবে, সুস্থ বিনোদন ও খেলাধুলার জন্য খেলার মাঠ নির্মাণ/উন্নয়ন করা হবে, পাখপাখালির নির্ধারিত অভয়ারণ্য গড়ে তুলব, নাওজোর-কাশিমপুর-জিরানী ও গাজীপুর- পুবাইল রোড এর কাজ শেষ করব, টঙ্গী শিল্প এলাকার রাস্তাগুলো দখলমুক্ত করে উভয়পাশে সবুজের সমারোহ ঘটাব, নগরীর খালগুলো দখল-দূষণমুক্ত করা হবে, নাগরিকরা ট্যাক্সের ভারে যাতে জর্জরিত না হন, সেদিকে খেয়াল রেখে সহনীয় ট্যাক্স নির্ধারণ করা হবে, ওয়ার্ডভিত্তিক সমস্যা চিহ্নিত করে পরিকল্পিত টেকসই উন্নয়ন ঘটানো হবে, নগরীর টেকসই উন্নয়নের জন্য শত বছর মেয়াদি মাস্টারপ্ল্যান প্রস্তুত করা হবে, পরিবেশ প্রতিবেশ রক্ষায় যাবতীয় প্রদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে, গাজীপুর নগরীকে পলিথিনমুক্ত ঘোষণা করা হবে, আধুনিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা গড়ে তুলা হবে, বায়ু ও পানি দূষণ সর্বনিম্ন মাত্রায় নামিয়ে আনার চেষ্টা করা হবে, অগ্রাধিকার ভিত্তিতে জলাবদ্ধতা দূরীকরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে, সু-পরিকল্পিত আবাসন প্রকল্প গ্রহণ করা হবে এবং মাদক, সন্ত্রাস, ইভটিজিংমুক্ত নগরী গড়ে তুলা হবে।

রনি সরকার বলেন, ‘আমি বয়সে তরুণ। আমি কথায় নয়, কাজে বিশ্বাসী। ভোট আপনাদের শ্রেষ্ঠ আমানত। যদি আমাকে আপনাদের যোগ্য মনে হয়, আগামী ২৫ মে ভোটের মাধ্যমে আপনাদের আমানতের সেরা বিনিয়োগ করুণ। কথা দিচ্ছি, আমি আপনাদের পাশে সেবক হয়ে থাকবো।’

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

শ্রীমঙ্গলে ঈদের ছুটিতেও দর্শনীয় স্থানগুলো প্রায় ফাঁকা

চাঁদপুরে নদী ভাঙ্গনে দিশেহারা জালিয়ার চরবাসী

রেললাইনে পানি ওঠায় ট্রেনের গতি কমানোর নির্দেশ

ধর্ষণ মামলায় রায়হান গ্রেপ্তার

ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ইতালিকে হারিয়ে শেষ ষোলোতে স্পেন

নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের দুই প্রকৌশলীর আর্থিক লেনদেনের ভিডিও ভাইরাল

কামাল লোহানীর পঞ্চম প্রয়াণ দিবসে উদীচীর স্মরণ সভা

রাসেলস ভাইপার মারলেই ৫০ হাজার টাকা পুরস্কার

ভিজিএফের চাল আত্মসাতের অভিযোগে আ.লীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

নারী নির্যাতন মামলায় চেয়ারম্যান কারাগারে

১০

ডেনমার্কের বিরুদ্ধে ইংল্যান্ডের হতাশার ড্র

১১

বাংলাদেশের সব অর্জন আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে : পলক

১২

আফগানদের হারিয়ে সুপার এইটে শুভ সূচনা ভারতের

১৩

চুরি করতে গিয়ে ছাত্রলীগ নেতা ধরা

১৪

মজুদদারদের বিরুদ্ধে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের বিধান রেখে নতুন আইন হচ্ছে : খাদ্যমন্ত্রী

১৫

ডিমলায় বুড়ি তিস্তা নদীর বাঁধে ভাঙন, পানিবন্দি ২ শতাধিক পরিবার

১৬

রাসেল ভাইপার নিয়ে ফেসবুকে ভুয়া পোস্ট ভাইরাল, জনমনে আতঙ্ক

১৭

ঈদের ছুটিতে ছিলেন অফিসে, মিলল লাশ

১৮

ল্যাবএইডে দিনে ৭০টির বেশি এন্ডোসকপি, অস্বাভাবিক বলছেন বিশেষজ্ঞরা

১৯

প্রকাশ্যে মদ খেয়ে মাতলামি, জেলে গেলেন যুবক

২০
X