কালবেলা প্রতিবেদক
প্রকাশ : ২৫ মে ২০২৩, ০৯:২৯ এএম
প্রিন্ট সংস্করণ

ভারত বিনিয়োগ করলে কোথাও যেতে হবে না : ওবায়দুল কাদের

ভারত বিনিয়োগ করলে কোথাও যেতে হবে না : ওবায়দুল কাদের

লাইন অব ক্রেডিটের (এলওসি) মাধ্যমে বাংলাদেশে বেশ কিছু বিনিয়োগ নিয়ে ভারত এগিয়ে এসেছে জানিয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ভারত যদি বাংলাদেশে সর্বোচ্চ বিনিয়োগ করে, তাহলে আমাদের অন্য কারও কাছে যেতে হয় না। গতকাল বুধবার রাজধানীর তেজগাঁওয়ে সড়ক ভবনে বারৈয়ারহাট-হেঁয়াকো-রামগড় সড়ক প্রশস্তকরণ প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন কাজের উদ্বোধন শেষে এসব কথা বলেন তিনি।

সেতুমন্ত্রী বলেন, বারৈয়ারহাট-হেঁয়াকো-রামগড় সড়ক প্রশস্তকরণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর যে স্থাপন, সেটাও এলওসির একটি প্রজেক্ট। একই সঙ্গে রামগড়ের মৈত্রী সেতু হয়ে গেছে। ফলে চট্টগ্রামের সঙ্গে সংযোগ বাড়বে। পাশাপাশি কক্সবাজার এয়ারপোর্টের বর্ধিতকরণের কাজ প্রায় শেষের দিকে। ঢাকায় যে তৃতীয় টার্মিনাল করা হয়েছে, তা অক্টোবরের দিকে সফট ওপেনিং করার সম্ভাবনা আছে।

নিজেদের স্বার্থেই বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, কিছু সমস্যা বন্ধুত্বপূর্ণ আলোচনার জন্য ওপেন আছে। কিন্তু মুখ দেখাদেখি বন্ধ করলে এবং সম্পর্ক নষ্ট করলে আমরা সামনের দিকে এগোতে পারব না। আমাদের ব্যবসা-বাণিজ্য পিছিয়ে থাকবে। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ভারতের বিজিপি, পার্টি টু পার্টি কনটাক্ট দরকার, জনগণের সঙ্গে জনগণের যোগাযোগ আরও সুদৃঢ় করার জন্য, সেতুবন্ধের জন্য।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বাংলাদেশের মাটি ব্যবহার করে ভারতের সীমান্তবর্তী এলাকায় যে সন্ত্রাসবাদ চলত, সেটি বন্ধ হয়েছে। এখান থেকে তা করার কোনো সুযোগ নেই। একইভাবে ভারতও কোনো সুযোগ দিচ্ছে না। তারাও এ বিষয়ে জিরো টলারেন্স। এজন্য সীমান্তে বর্ডার সন্ত্রাসবাদ যেটা দুদেশের জন্য ক্ষতিকর প্রভাব নিয়ে আসত, সেটা আর হচ্ছে না।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, আমাদের বিআরটিসি বহরের বেশিরভাগ গাড়ি ভারতের প্রস্তুত করা। এখন আমাদের বিআরটিসি বহরে ১ হাজার ১০০-র মতো গাড়ি এসেছে। নতুন করে সবার জন্য বৈদ্যুতিক ডাবলডেকার ১০০ এসি বাস নভেম্বরের মধ্যে আনার কথাবার্তা হয়েছে। আশা করি, বিআরটিসির বহর আরও সমৃদ্ধ হবে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সড়ক ও জনপথ অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী মো. ইসহাক। উপস্থিত ছিলেন ভারতের হাইকমিশনার প্রণয় ভার্মা, সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সচিব এবিএম আমিন উল্লাহ নুরী, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান নুর মোহাম্মদ মজুমদার, ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম এ এন ছিদ্দিক, ঢাকা বিআরটি কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সফিকুল ইসলাম ও ফটিকছড়ি চট্টগ্রাম-২ আসনের সংসদ সদস্য সৈয়দ নাজিবুল বশর মাইজভাণ্ডারী।

বিএনপির এক দফা কি শেখ হাসিনাকে হত্যার দফা : এদিকে বিএনপির এক নেতা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে প্রকাশ্য সমাবেশে প্রাণনাশের হুমকি দেওয়ার পরও দলটির দায়িত্বশীল নেতাদের চুপ থাকা নিয়ে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন ওবায়দুল কাদের। দলটির নেতাদের প্রতি প্রশ্ন রেখে তিনি বলেছেন, তাহলে কি এতে তাদের মৌন সম্মতি রয়েছে?

গতকাল সড়ক বিভাগের অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘রাজশাহীতে তারা প্রধানমন্ত্রীকে হত্যার হুমকি দিয়েছে। তিনি যে সাধারণ ব্যক্তি, এটা ভাবার কারণ নেই, কারণ তিনি জেলার প্রধান এবং কেন্দ্রের সদস্য। আমি অবাক হলাম মির্জা ফখরুল পার্টির সেক্রেটারি জেনারেল, তিনি একটা শব্দও উচ্চারণ করলেন না।’

তিনি বলেন, বাংলাদেশের মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাস তিনি এ ঘটনাকে ভালোভাবে নেননি এবং নিন্দা করেছেন। সেখানে বিএনপি থেকে কোনো দায়িত্বশীল নেতা তাদের রাজশাহীর নেতার এই হুমকি দিয়ে বিষোদগার করেছেন, তা নিয়ে তারা আজ পর্যন্ত কোনো ব্যবস্থা নেননি এবং তাদের একজন জয়েন্ট সেক্রেটারি সিলিপ অব টাং বলে দায়িত্ব শেষ করেছেন।

বিএনপি নেতাদের প্রতি তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, শেখ হাসিনাকে কবরস্থানে পাঠানো—এটাই কি তাদের এক দফা? এই ব্যাপারে তাদের নেতাদের বক্তব্য শুনতে চাই। এতে এখনো স্থায়ী কমিটির কোনো নেতা কিছু বলেননি। তাহলে নিশ্চয় এটাতে তাদের মৌন সম্মতি আছে। উপর দিয়ে তারা বলতে পারছে না কাউকে দিয়ে বলাচ্ছেন।

রাজধানীতে বিএনপির সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ, গাড়িতে আগুন দেওয়ার নিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, গতকাল তারা গায়ে পড়ে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে লিপ্ত হয়েছে। বিআরটিসির একটি গাড়ি পুড়িয়ে ফেলল। আমরা এতদিন বলে আসছিলাম তারা আন্দোলনের নামে নৈরাজ্য করবে, সন্ত্রাস করবে এবং এটা তাদের পুরোনো স্বভাব।

সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ইসির ভূমিকা নিয়ে করা এক প্রশ্নের জবাবে সেতুমন্ত্রী বলেন, ইসির দায়িত্বটা তারা যথাযথভাবে পালন করছে কি না, এখনই বলা ভুল। নির্বাচন হলে বুঝতে পারবেন ইসির ভূমিকা কী?

তিনি বলেন, তারা (বিএনপি) নির্বাচনও করবে না আবার স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে দাঁড়াবে... পরিচয় গোপন করেও গাজীপুরসহ বাকি চারটি সিটি করপোরেশনে তাদের প্রার্থী আছে। তাদের স্বরূপে তারা উন্মোচিত হবে, সেটা নির্বাচনে প্রমাণিত হবে।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

রেললাইনে পানি ওঠায় ট্রেনের গতি কমানোর নির্দেশ

ধর্ষণ মামলায় রায়হান গ্রেপ্তার

ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ইতালিকে হারিয়ে শেষ ষোলোতে স্পেন

নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের দুই প্রকৌশলীর আর্থিক লেনদেনের ভিডিও ভাইরাল

কামাল লোহানীর পঞ্চম প্রয়াণ দিবসে উদীচীর স্মরণ সভা

রাসেলস ভাইপার মারলেই ৫০ হাজার টাকা পুরস্কার

ভিজিএফের চাল আত্মসাতের অভিযোগে আ.লীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

নারী নির্যাতন মামলায় চেয়ারম্যান কারাগারে

ডেনমার্কের বিরুদ্ধে ইংল্যান্ডের হতাশার ড্র

বাংলাদেশের সব অর্জন আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে : পলক

১০

আফগানদের হারিয়ে সুপার এইটে শুভ সূচনা ভারতের

১১

চুরি করতে গিয়ে ছাত্রলীগ নেতা ধরা

১২

মজুদদারদের বিরুদ্ধে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের বিধান রেখে নতুন আইন হচ্ছে : খাদ্যমন্ত্রী

১৩

ডিমলায় বুড়ি তিস্তা নদীর বাঁধে ভাঙন, পানিবন্দি ২ শতাধিক পরিবার

১৪

রাসেল ভাইপার নিয়ে ফেসবুকে ভুয়া পোস্ট ভাইরাল, জনমনে আতঙ্ক

১৫

ঈদের ছুটিতে ছিলেন অফিসে, মিলল লাশ

১৬

ল্যাবএইডে দিনে ৭০টির বেশি এন্ডোসকপি, অস্বাভাবিক বলছেন বিশেষজ্ঞরা

১৭

প্রকাশ্যে মদ খেয়ে মাতলামি, জেলে গেলেন যুবক

১৮

ওসির কেরামতিতে মায়ের কোলে ‍ফিরল শিশু

১৯

পৃথিবীর সবচেয়ে ভয়ংকর ১০ সাপ, বসবাস যেসব এলাকায়

২০
X