কালবেলা প্রতিবেদক
প্রকাশ : ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, ০৯:৪১ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

ডা. মালেককে আজীবন সম্মাননা পুরস্কার দিল সম্মান ফাউন্ডেশন

ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও দেশের প্রথিতযশা হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ব্রিগেডিয়ার (অব.) ডা. আব্দুল মালেক সম্মান কাইন্ডনেস পুরস্কার পেয়েছেন। আজ শনিবার রাজধানীর ডেইলি স্টার ভবনে এক অনুষ্ঠানে ডা. মালেকের কন্যা অধ্যাপক ফজিলাতুন্নেসা মালেকের হাতে পুরস্কার তুলে দেন সিআরপির প্রতিষ্ঠাতা ভ্যালেরি অ্যান টেইলর, ডেইলি স্টার সম্পাদক মাহফুজ আনাম ও সম্মান ফেউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ডা. রুবাইয়ুল মুর্শেদ। ডা. মালেক শারীরিক অসুস্থতাজনিত কারণে অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকতে পারেননি।

অনুষ্ঠানে সিআরপির প্রতিষ্ঠাতা ভ্যালেরি অ্যান টেইলর কাইন্ডনেসের ভূমিকা নিয়ে আলোচনা করেন। তিনি বলেন, মানুষ মানুষের প্রতি দয়া অনুভব না করলে সমাজ শান্তিপূর্ণ হয় না। সেই দিক থেকে সম্মান ফাউন্ডেশন যে কাজ করছে, তার ভূয়সী প্রশংসা করে তিনি বলেন, কাইন্ডনেস মানুষকে মানুষের কাছে নিয়ে আসে, সেটাই সমাজের ভিত্তি।

পুরস্কার গ্রহণের সময় অনুভূতি ব্যক্ত করে ফজিলাতুন্নেসা মালেক বলেন, ‘এই পুরস্কার গ্রহণ করে আমি অভিভূত। যে প্রতিষ্ঠান এই পুরস্কার দিচ্ছে, অর্থাৎ সম্মান ফাউন্ডেশন, তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই।’

নিজের পিতা ডা. মালেক সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘আমার বাবা সেবাই পরম ধর্ম বলে মানেন। সেই ব্রত নিয়েই তিনি জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট গড়ে তোলেন ১৯৭০-এর দশকে। এরপর সেই প্রতিষ্ঠান অনেক বড় হয়েছে।’

অনুষ্ঠানের সম্মানিত অতিথি ভুটান দূতাবাসের চ্যান্সেরি শেরাব দর্জি বলেন, ‘সবাই জানেন, ভুটানের রাষ্ট্রীয় নীতি হচ্ছে গ্রস ন্যাশনাল হ্যাপিনেস। ১৯৭০-এর দশকে ভুটান এই নীতি গ্রহণ করে। এরপর ধাপে ধাপে তার উন্নতি হয়েছে। এর মূল কথা হলো, মানুষের সর্বাঙ্গীন সন্তোষ ও শান্তি নিশ্চিত করা।’ মানুষের নিঃস্বার্থ কাজ ও দয়ার স্বীকৃতি দেওয়ার জন্য সম্মান ফাউন্ডেশনকে অভিনন্দন জানান শেরাব দর্জি। একই সঙ্গে, পুরস্কারপ্রাপ্তদের অভিনন্দন জানান তিনি।

অনুষ্ঠানের স্বাগত বক্তব্যে সম্মান ফেউন্ডেশনের চেয়ারম্যান ডা. রুবাইয়ুল মুর্শেদ বলেন, ‘কাইন্ডনেস বা দয়ার শক্তি অপরিসীম। এক সময় দয়াকে মানুষের দুর্বলতা হিসেবে গণ্য করা হতো, কিন্তু এখন আর সেই দিন নেই; বরং দয়া মানুষের শক্তি। এই শক্তি ছাড়া মানুষ জীবনে সুখী হতে পারে না।

‘বিশেষ করে কোভিডের পর বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, মানুষের সুখের সঙ্গে দয়ার সম্পর্ক আছে।’

সুখের প্রসঙ্গে ডা. রুবাইয়ুল মুর্শেদ ভুটানের উদাহরণ দেন। তিনি বলেন, ভুটান মোট দেশজ উৎপাদনের হিসাব করে না। তারা গ্রস ন্যাশনাল হ্যাপিনেস বা জিএনএইচ বা মোট জাতীয় সুখের হিসাব করে। অর্থাৎ তারা বস্তুগত উন্নতির চেয়ে আত্মিক উন্নতিতে বেশি জোর দেয়। তিনি মনে করেন, ভুটান আমাদের সবার জন্য উদাহরণ হতে পারে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ডেইলি স্টার সম্পাদক মাহফুজ আনাম, আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন জনস্বাস্থ্যবিদ আহমেদ মুশতাক রাজা চৌধুরী, গবেষণা প্রতিষ্ঠান সিপিডির বিশেষ ফেলো অর্থনীতিবিদ মোস্তাফিজুর রহমান প্রমুখ। বিদেশি অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন—মহাত্মা গান্ধী প্রতিষ্ঠিত হরিজন সেবক সংঘের সভাপতি শঙ্কর কুমার সান্যাল, পশ্চিমবঙ্গের সমাজ সংস্কারক সুভাষ মণি সিংহসহ অনেকে।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

মারধরের শিকার খুবি শিক্ষার্থী 

আইন ভেঙে গরু জবাই, বিক্রেতাকে জরিমানা

স্থলবন্দরে মুদ্রা বিনিময় বুথ না থাকায় ভোগান্তি

পুলিশ পদক পেলেন ৪০০ জন কর্মকর্তা

চিনির দাম নিয়ে আবারও সিদ্ধান্ত বদলালো সরকার

মদপানেই পরিবেশ অধিদপ্তরের পরিচালক ও স্ত্রীর মৃত্যু, ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন

ট্রান্সকম গ্রুপের ৫ কর্মকর্তা গ্রেপ্তার

শস্য দানায় বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনা

জাবির বর্তমান পরিস্থিতি ভর্তি পরীক্ষায় প্রভাব ফেলেনি : উপাচার্য

প্রশাসনে বড় রদবদল

১০

পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগের দাবিতে রাবিতে আমরণ অনশন

১১

এবার রাবি কর্মকর্তার পেনশন নিয়ে ‘ইউএস অ্যাগ্রিমেন্ট’র প্রতারণা, মামলা

১২

মায়ের জানাজায় এসে লাশ হলেন ইতালি প্রবাসী

১৩

নতুন কর্মসূচি ডেকেছে জিএম কাদেরপন্থিরা

১৪

বাংলাদেশে পেঁয়াজ রপ্তানির অনুমতি দিল ভারত

১৫

ময়মনসিংহে ট্রাকের ধাক্কায়, নিহত ২ আহত ৩

১৬

কলাগাছের প্রতীকী শহীদ মিনারেই ভরসা ক্ষুদে শিক্ষার্থীদের

১৭

পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রে কর্মরত বিদেশি নাগরিকের আইফোন ছিনতাই, অতঃপর...

১৮

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশিসহ ৯০ অভিবাসী গ্রেপ্তার

১৯

আগরতলায় গভীর শ্রদ্ধায় ভাষা শহীদদের স্মরণ

২০
X