জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি
প্রকাশ : ১৭ নভেম্বর ২০২২, ১২:২৯ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

প্রভোস্টের আশ্বাসে হলে ফিরলেন জাবি ছাত্রীরা

প্রভোস্টের আশ্বাসে হলে ফিরলেন জাবি ছাত্রীরা

প্রভোস্টের আশ্বাসে হলে ফিরেছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) ফজিলাতুন্নেসা হলের ছাত্রীরা। গতকাল বুধবার রাত ২টার দিকে তারা ফিরে যান।

এর আগে নবনির্মিত আবাসিক হলে সব ছাত্রীর আবাসনের দাবিতে সন্ধ্যা ৭টার দিকে ফজিলাতুন্নেসা হলের সামনে অবস্থান নেন তারা। হলের প্রভোস্ট ও প্রক্টর বিষয়টি মীমাংসা করতে এলে ছাত্রীরা তাদের অবরুদ্ধ করে পাঁচ দফা দাবি জানান।

দাবি পাঁচটি হলো :

১. ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে ফজিলাতুন্নেসা হলের সব ছাত্রীর আবাসনের ব্যবস্থা করতে হবে।

২. প্রথমে উদ্বোধন করা হলের নাম ফজিলাতুন্নেসা রাখতে হবে।

৩. সিট বণ্টনের সময় ফজিলাতুন্নেসা হলের ছাত্রীদের অগ্রাধিকার দিয়ে পরে অন্যদের সুযোগ দিতে হবে।

৪. অবশ্যই সব ছাত্রীকে একসঙ্গে স্থানান্তর করতে হবে।

৫. বৃহস্পতিবারের মধ্যে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানাতে হবে।

এর আগে গত সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক নূরুল আলমের সভাপতিত্বে প্রভোস্টদের সভা হয়। সভায় নবনির্মিত দুটি ছাত্রী হলে বিভিন্ন বর্ষের ১০০ জন করে ছাত্রী স্থানান্তরের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। স্থানান্তরের জন্য নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের তালিকা ২২ নভেম্বরের মধ্যে রেজিস্ট্রার অফিসের শিক্ষা শাখায় জমা দিতে বলা হয়। এই সিদ্ধান্ত জানার পর ফজিলাতুন্নেসা হলের ছাত্রীরা আন্দোলনে নামেন।

৪৮ ব্যাচের ছাত্রী মনি নাসরিন বলেন, ‘ক্যাম্পাসের হলগুলোর মধ্যে সবচেয়ে জরাজীর্ণ অবস্থা ফজিলাতুন্নেসা হলের৷ তিন বছর পেরিয়ে গেলেও গণরুমে থাকছি। হলের পলেস্তারা খসে পড়ছে, ডাইনিং চালু নেই। প্রায় ৬০০ ছাত্রী এখানে গাদাগাদি করে থাকে।

‘অন্য হলগুলো, যেখানে কোনো আবাসন সংকট নেই, তাদের কেন নতুন হলে উঠতে দেওয়া হবে? নতুন হলে ফজিলাতুন্নেসা হলের ছাত্রীরাই সবচেয়ে বেশি দাবিদার।’

৪৯ ব্যাচের ছাত্রী তানজিলা তাবাসসুম তন্দ্রা বলেন, ‘আমাদের যাদের হলের মূল ভবনে জায়গা হয়নি, তাদের প্রভোস্ট কোয়ার্টারে থাকতে হয়। একটা ফ্ল্যাটে আমরা ৬০ জন থাকছি। সেখানে পর্যাপ্ত টয়লেট নেই, ডাইনিং নেই। যেসব মেয়ে কোয়ার্টারে থাকে, তারা হলের চেহারাই দেখে নাই৷ অন্যদের আগে আমাদের নতুন হলে তোলার ব্যবস্থা করতে হবে।’

এ বিষয়ে ফজিলাতুন্নেসা হলের প্রভোস্ট অধ্যাপক এ টি এম আতিকুর রহমান বলেন, ‘আমরা ছাত্রীদের সঙ্গে অনেকক্ষণ কথা বলেছি। নতুন করে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য প্রভোস্ট কমিটিকে আবার বসতে হবে। বৃহস্পতিবার আনুষ্ঠানিকভাবে বসে সিদ্ধান্ত নেব।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসান বলেন, ‘আমি আড়াই থেকে তিন ঘণ্টা ছাত্রীদের সঙ্গে কথা বলেছি। আমরা বারবার বলছি, ছাত্রীরা নতুন হলে যাবেই। ৩০ নভেম্বর যেটা উদ্বোধন করা হবে, সেখানে আপাতত ১০০ জন করে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ক্রমান্বয়ে বাকিদেরও শিফট করা হবে।’

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

সিলেটে ৮ লাখ টাকার চিনিসহ ট্রাক জব্দ

সিলেটে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি, বাড়ছে নানা রোগবালাই

জাবির সাবেক উপাচার্য মারা গেছেন

চিকিৎসকদের অবহেলায় সাপে কাটা রোগীর মৃত্যুর অভিযোগ

খালেদা জিয়ার আরোগ্য কামনায় যুবদলের দোয়া মাহফিল

ট্রাক্টরচাপায় প্রাণ গেল দুজনের

চাঁদা চাওয়ায় কাস্টমসের কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবসায়ীর মামলা

এবার সিরাজগঞ্জে মিলল রাসেল ভাইপারের বাচ্চা, এলাকায় আতঙ্ক

এআইইউবি ও ফিলিস্তিনের শিক্ষার্থীদের মধ্যে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত

সিলেটে তরুণীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ

১০

১৫ লাখ টাকার একটি খাসি, কেড়ে নিল লাকীর হাসি

১১

বিশ্বকে মহাবিপদ থেকে বাঁচাতে যে সতর্কবার্তা দিল তুরস্ক

১২

হত্যা নাকি মৃত্যু, দেড় মাস পর কিশোরের লাশ উত্তোলন

১৩

কীসের বিনিময়ে মুক্তি পেলেন জুলিয়ান অ্যাসাঞ্জ?

১৪

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নৈশপ্রহরী হত্যা, দুজনের যাবজ্জীবন

১৫

খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় দোলাইপাড়ে বিএনপির দোয়া মাহফিল

১৬

সরকারি কর্মকর্তাদের দুর্নীতি নিয়ে সংসদে ক্ষোভ

১৭

স্মার্ট নাগরিক হিসেবে গড়ে তুলতে ছাত্রলীগের প্রতি আহ্বান পলকের

১৮

মাদক-বাল্যবিবাহ-যৌতুক প্রতিরোধে ভূমিকা পালনকারীদের পুরস্কৃত করবে ছাত্রলীগ 

১৯

বিদ্যুৎস্পর্শে প্রাণ গেল কিশোরের

২০
X