কালবেলা প্রতিবেদক
প্রকাশ : ০৯ মার্চ ২০২৩, ০৫:০৮ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

দুর্ঘটনা ঘটলেই দোষারোপের রাজনীতি শুরু হয় : জি এম কাদের

দুর্ঘটনা ঘটলেই দোষারোপের রাজনীতি শুরু হয় : জি এম কাদের

দেশে কোনো ধরনের দুর্ঘটনা ঘটলেই দোষারোপের রাজনীতি শুরু হয় বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধীদলীয় উপনেতা জি এম কাদের। আজ বৃহস্পতিবার জাপার বনানীর কার্যালয় মিলনায়তনে জাতীয় মহিলা পার্টি আয়োজিত আন্তর্জাতিক নারী দিবসের আলোচনায় এ মন্তব্য করেন তিনি।

জি এম কাদের বলেন, দুর্ঘটনা ঘটলেই দোষারোপের রাজনীতি শুরু হয়। সরকারি দলের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, বিরোধীপক্ষ আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে নাশকতা করছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। যদি নাশকতা হয়েই থাকে, তাহলে সরকার নাশকতা ঠেকাতে পুরোপুরি ব্যর্থ। নাশকতা ঠেকাতে যারা ব্যর্থ হয়েছে, তাদের বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে?

সিদ্দিকবাজারের ভবনে বিস্ফোরণের ঘটনায় স্বজনহারাদের প্রতি সহানুভূতি না জানিয়ে দেশে আনন্দ ফুর্তি চলছে জানিয়ে তিনি বলেন, ভয়াবহ এই বিস্ফোরণে হতাহতের ঘটনায় দেশের মানুষ শোকাহত। স্বজনহারাদের আহাজারি চলছে। এক দিকে আহাজারি, অন্যদিকে আনন্দ ফুর্তি চলছে।

এ রকম দুর্ঘটনা থেকে দেশের মানুষকে রক্ষা করতে না পারলে রাষ্ট্র শোক প্রকাশ করতে পারে উল্লেখ করে তিনি বলেন, দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হলে স্বজনহারাদের প্রতি সহানুভূতি জানানো যেত। এখন ব্যর্থতা ঘোচাতে অপরকে দোষারোপ করা হচ্ছে। আমরা নিহতদের যথাযথ ক্ষতিপূরণ এবং আহতদের সুচিকিৎসা নিশ্চিত করতে দাবি জানাচ্ছি। যারা এই দুর্ঘটনার জন্য দায়ী তাদের চিহ্নিত করা হচ্ছে না।

যাদের ব্যর্থতা, অবহেলা, দায়িত্বহীনতা এবং দুর্নীতির কারণে এমন ভয়াবহ অবস্থা সৃষ্টি হচ্ছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে এমন দাবি জানিয়ে জি এম কাদের বলেন, একটি দুর্ঘটনা ঘটলে তা থেকে শিক্ষা নিতে হয়, যাতে এমন আর না ঘটে। তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। তদন্ত রিপোর্ট কেউ জানে না। কে দায়ী? বা দায়ীর বিরুদ্ধে কী ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে তা কেউ জানতে পারে না। এখন সব কিছুতেই গলদ।

তিনি বলেন, ভবন নির্মাণে বিল্ডিং কোড মানা হচ্ছে না। গ্যাসের লাইন বৈধ না অবৈধ তার ঠিক নেই। এগুলো দেখাশোনার দায়িত্বে যারা, তাদের খোঁজ নেই। এত বড় বড় দুর্ঘটনা ঘটছে কিন্তু কারণ উদ্ঘাটন করা সম্ভব হচ্ছে না। এর চেয়ে বড় ব্যর্থতা আর হতে পারে না।

জি এম কাদের বলেন, সমাজ থেকে বৈষম্য দূর করতে হলে আগে ক্ষমতার বৈষম্য দূর করতে হবে। মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন করতে পারলেই দেশ থেকে বৈষম্য দূর করা সম্ভব হবে।

জাতীয় মহিলা পার্টির আহ্বায়ক ও কো-চেয়ারম্যান সালমা ইসলামের সভাপতিত্বে এবং যুগ্ম আহ্বায়ক নাজমা আখতারের সঞ্চালনায় বিশ্ব নারী দিবসের আলোচনায় আরও বক্তব্য দেন দলের মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু, কো-চেয়ারম্যান এ বি এম রুহুল আমিন হাওলাদার, সৈয়দ আবু হোসেন বাবলা, চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা শেরীফা কাদের, হেনা খান পন্নি, অ্যাডভোকেট লাকী বেগম, ডা. সেলিমা খান, অধ্যাপিকা বিলকিস আখতার পুতুল, খাইরুন নাহার, রিতা নূর, জেসমিন নূর প্রিয়াংকা প্রমুখ।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

উপজেলা প্রশাসনের গাফিলতিতে ফসলি জমি হচ্ছে পুকুর

গবেষণা / ফুটপাতের যে ৬ খাবারে উচ্চমাত্রার ডায়রিয়ার জীবাণু

কোরবানি ঈদকে সামনে রেখে বাজারে বেড়েছে মসলার দাম

সারাবিশ্বে জাল পাতছেন এরদোয়ান

‘ড্যানিস নিট ওয়্যারে শ্রমিকদের বকেয়া পাওনা পরিশোধ করুন’

দেশে যৌন নিপীড়নের শিকার ২৫ লাখ শিশুর রিপোর্ট যুক্তরাষ্ট্রের হাতে

ইউক্রেনে যুদ্ধের ময়দান থেকে পালাল যুক্তরাষ্ট্রের আব্রামস ট্যাংক

সড়ক দুর্ঘটনায় সৌদি আরবে প্রাণ গেল যুবকের

ভারত পৃথিবীর সবচেয়ে বড় গণতান্ত্রিক দেশ : মুক্তিযুদ্ধবিষয়কমন্ত্রী 

মজুরি বৃদ্ধির দাবিতে দর্জি শ্রমিকদের ধর্মঘট

১০

ভাইস প্রেসিডেন্টের বিমান বিধ্বস্ত হয়ে সবাই নিহত

১১

নারায়ণগঞ্জে নদী থেকে ইট বাঁধা অজ্ঞাত মরদেহ উদ্ধার

১২

ফরিদপুরে সাপের কামড়ে কৃষকের মৃত্যু 

১৩

বালিশচাপায় হত্যা, মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি গ্রেপ্তার

১৪

একাংশের কাউন্সিল / কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান শামসুদ্দিন, আবু হানিফ মহাসচিব

১৫

কুয়েতে ভবনে অগ্নিকাণ্ডে নিহতদের পরিচয় মিলেছে

১৬

৪১ দিন জামাতে নামাজ পড়ে সাইকেল উপহার পেল শতাধিক কিশোর

১৭

আনারকে হত্যার আগে যেভাবে চেয়ারে বেঁধে রাখা হয়

১৮

টেলিকমে করারোপে সরকারের আয় কমবে : এমটব

১৯

হাইকোর্টে নদী রক্ষা কমিশনের প্রতিবেদন  / বংশী নদীতে ৮৫০ অবৈধ স্থাপনা

২০
X