কালবেলা প্রতিবেদক
প্রকাশ : ২০ মে ২০২৩, ০৭:৩২ পিএম
অনলাইন সংস্করণ

সরকারের অবৈধ আদেশ মানবেন না, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে খন্দকার মোশাররফ

সরকারের অবৈধ আদেশ মানবেন না, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে খন্দকার মোশাররফ

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর উদ্দেশে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, আপনারা জনগণের সেবক হওয়ার কথা। কিন্তু জনগণের ওপর গুলি চালাচ্ছেন। আপনারা এ পর্যন্ত যা করেছেন তা জনগণের বিপক্ষে করেছেন। মনে রাখবেন অবৈধ সরকারের অন্যায় হুকুম মানতে গিয়ে র‌্যাবকে স্যাংশন দেওয়া হয়েছে। আপনারা যারা শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে বাধা দেবেন ও গুলি চালাবেন আগামীতে যারা ক্ষমতায় আসবে তারা কিন্তু আপনাদের ক্ষমা করবে না। আমরা একটি সভা-সমাবেশেও বিশৃঙ্খলা করিনি। বরং শান্তিপূর্ণ সমাবেশ করছি।

আজ শনিবার বিকেলে রাজধানীতে এক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় খুলনা, পটুয়াখালী, রাজবাড়ী, নেত্রকোনাসহ বেশ কয়েকটি জেলায় বিএনপির সমাবেশে হামলা ও পুলিশের গুলির নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

বিএনপির ১০ দফা বাস্তবায়নের দাবিতে রাজধানীর মতিঝিলে পীরজঙ্গী মাজারের সামনে এই সমাবেশ হয়। গতকাল ১০টি বিভাগের ১৮টি সাংগঠনিক জেলা ও মহানগরে এই কর্মসূচি হয়েছে। তার মধ্যে পটুয়াখালী, রাজবাড়ী ও নেত্রকোনা জেলায় বিএনপির সমাবেশে পুলিশ বাধা দিলে তা পণ্ড হয়ে যায় এবং বিএনপি নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের ব্যাপক ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনায় শতাধিক নেতাকর্মী আহত হয়েছে।

খন্দকার মোশাররফ বলেন, আমাদের নেতাকর্মীদের মামলা দিয়ে গ্রেপ্তার করছে। আমরা এই অবৈধ সরকারের পদত্যাগ, ভোটবিহীন সংসদ বিলুপ্ত করে এবং সবার অংশগ্রহণে জাতীয় নির্বাচনের দাবি জানাই। এই দাবি শুধু বিএনপির নয়। এই দাবিতে গোটা দেশের— মানুষ এখন ঐক্যবদ্ধ হয়েছে। কিন্তু শেখ হাসিনা শুধু ক্ষমতায় টিকে থাকতে দেশে গণতন্ত্র হত্যা করে মানুষের ভোটাধিকারও হরণ করেছে। আওয়ামী লীগ ’৭২-’৭৫ সালেও এই কাজ করেছিল বাকশাল প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে।

তিনি বলেন, তারা গত ১৪ বছর দেশে দিনের ভোট রাতে কেটেছে। এখনো অলিখিত বাকশাল কায়েম করেছে। সিন্ডিকেটের মাধ্যমে দ্রব্য মূল্যবৃদ্ধি ও দেশের অর্থনীতি ধ্বংস করেছে। দেশে গণতন্ত্র ও আইনের শাসন নেই। দলীয়করণের মাধ্যমে বিচার ব্যবস্থা ধ্বংস করেছে। তারা বারবার দেশের গণতন্ত্র হত্যা করেছে। জনগণ এই সরকারকে ক্ষমতায় দেখতে চায় না। জনগণের পিঠ দেওয়ালে ঠেকে গেছে। গরিব আরও গরিব হয়েছে।

খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, জনগণের এখন একটাই দাবি—অনতিবিলম্বে এই সরকারকে ক্ষমতা থেকে সরাতে হবে। কারণ তারা গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার ও অর্থনীতি মেরামত করতে পারবে না। এ জন্যই মানুষ চায় শেখ হাসিনার পদত্যাগ। সুতরাং আসুন সবাই মিলে ঐক্যবদ্ধভাবে রাজপথে থেকে এই সরকারকে বিদায় করি।

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক মো. আব্দুস সালামের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব মো. রফিকুল আলম মজনুর পরিচালনায় সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, কেন্দ্রীয় নেতা আবুল খায়ের ভুঁইয়া, অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ, ব্যারিস্টার নাসির উদ্দিন অসীম, মীর সরফত আলী সপু, কামরুজ্জামান রতন, রকিবুল ইসলাম বকুল, আমিরুল ইসলাম খান আলিম, মীর নেওয়াজ আলী নেওয়াজ, মহানগর বিএনপির নবীউল্লাহ নবী, হাবিবুর রশিদ হাবিব, লিটন মাহমুদ, যুবদলের সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, মহিলা দলের আফরোজা আব্বাস, কৃষক দলের শহীদুল ইসলাম বাবুল, স্বেচ্ছাসেবক দলের এস এম জিলানী, মুক্তিযোদ্ধা দলের সাদেক আহমেদ খান, ওলামা দলের নজরুল ইসলাম তালুকদার, মৎস্যজীবী দলের রফিকুল ইসলাম মাহতাব প্রমুখ।

সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে ঢাকা দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক মো. আবদুস সালাম বলেন, আমরা গণতন্ত্র ও বাকস্বাধীনতার জন্য ’৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছিলাম। কিন্তু আওয়ামী লীগ ’৭২-’৭৫ সালে আবারও বাকস্বাধীনতা হরণ করলে আমরা তাদের বিরুদ্ধে আন্দোলন করেছিলাম। আজও আমাদের যুদ্ধ চলমান। এই ফ্যাসিস্ট আওয়ামী লীগের বিদায় না হওয়া পর্যন্ত আমরা ঘরে ফিরব না।

জামালপুরে সমাবেশ

এদিকে কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ জামালপুরে সমাবেশ হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল। আরও বক্তব্য দেন ময়মনসিংহ বিভাগের সাংগঠনিক সম্পাদক এমরান সালেহ প্রিন্স, কেন্দ্রীয় নেতা মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল প্রমুখ।

কালবেলা অনলাইন এর সর্বশেষ খবর পেতে Google News ফিডটি অনুসরণ করুন
  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়

চাঁদপুরে নদী ভাঙ্গনে দিশেহারা জালিয়ার চরবাসী

রেললাইনে পানি ওঠায় ট্রেনের গতি কমানোর নির্দেশ

ধর্ষণ মামলায় রায়হান গ্রেপ্তার

ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ইতালিকে হারিয়ে শেষ ষোলোতে স্পেন

নারায়ণগঞ্জ জেলা পরিষদের দুই প্রকৌশলীর আর্থিক লেনদেনের ভিডিও ভাইরাল

কামাল লোহানীর পঞ্চম প্রয়াণ দিবসে উদীচীর স্মরণ সভা

রাসেলস ভাইপার মারলেই ৫০ হাজার টাকা পুরস্কার

ভিজিএফের চাল আত্মসাতের অভিযোগে আ.লীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

নারী নির্যাতন মামলায় চেয়ারম্যান কারাগারে

ডেনমার্কের বিরুদ্ধে ইংল্যান্ডের হতাশার ড্র

১০

বাংলাদেশের সব অর্জন আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে : পলক

১১

আফগানদের হারিয়ে সুপার এইটে শুভ সূচনা ভারতের

১২

চুরি করতে গিয়ে ছাত্রলীগ নেতা ধরা

১৩

মজুদদারদের বিরুদ্ধে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের বিধান রেখে নতুন আইন হচ্ছে : খাদ্যমন্ত্রী

১৪

ডিমলায় বুড়ি তিস্তা নদীর বাঁধে ভাঙন, পানিবন্দি ২ শতাধিক পরিবার

১৫

রাসেল ভাইপার নিয়ে ফেসবুকে ভুয়া পোস্ট ভাইরাল, জনমনে আতঙ্ক

১৬

ঈদের ছুটিতে ছিলেন অফিসে, মিলল লাশ

১৭

ল্যাবএইডে দিনে ৭০টির বেশি এন্ডোসকপি, অস্বাভাবিক বলছেন বিশেষজ্ঞরা

১৮

প্রকাশ্যে মদ খেয়ে মাতলামি, জেলে গেলেন যুবক

১৯

ওসির কেরামতিতে মায়ের কোলে ‍ফিরল শিশু

২০
X